মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট ২০২০! Islamic Life,,,2020

মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট ২০২০,,,,,,, অনলাইনে আয় করার নিশ্চিত উপায়,,,,,,,,অনলাইনে আয় বিকাশে পেমেন্ট,,,, মোবাইল দিয়ে আয় করে বিকাশে টাকা,,,,,, অনলাইন থেকে আয় করার উপায়,,,,,

মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট অথবা অনলাইনে আয় করে বিকাশে পেমেন্ট নেওয়ার জন্য আজকাল গুগলে খুব বেশি পরিমানে সার্চ করা হয়! আপনি নিজেও হয়ত কখনো আগ্রহের বশে অথবা কৌতুহল বশত মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট কিংবা অনলাইনে আয় করে বিকাশে পেমেন্ট নেওয়ার প্রসেসটা গুগলে সার্চ করে জেনে নেওয়ার চেষ্টা করেছেন। গুগল সার্চ রেজাল্ট হতে প্রাপ্ত অনলাইন আয়ের বিষয়ে অনেকগুলো পোস্ট পড়েও শেষ পর্যন্ত অনলাইনে আয় করে বিকাশে পেমেন্ট পাওয়ার বিষয়ে কোন ‍সুনির্দিষ্ট তথ্য পাননি।

যদিও গুগল সহ ইউটিউবে মোবাইল দিয়ে অনলাইন হতে টাকা আয় করে বিকাশে পেমেন্ট নেওয়া অনেক তথ্য ও ভিডিও রয়েছে কিন্তু আমি চ্যালেজ্ঞ করে আপনাকে বলতে পারি যে, ইউটিউব ভিডিও দেখে কিংবা গুগলে সার্চ করে প্রাপ্ত বিভিন্ন ব্লগ হতে অনলাইনে আয় বিকাশে পেমেন্ট কিংবা মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট নেওয়ার বিষয়ে আপনি কোন সুনির্দিষ্ট তথ্য পাবেন না।

অনলাইনে আয় বিকাশে পেমেন্ট বা মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট নেওয়ার বিষয়ে একটি পোস্ট লেখার জন্য আমি গত তিন দিন যাবত অনলাইনে বিভিন্ন বাংলা ও ইংরেজী ব্লগ পড়াসহ কয়েকটি ইউটিউব চ্যানেলে মিনিমাম ৪০-৫০ টি ভিডিও দেখেছি। আসলে আমি যেকোন বিষয় লেখার পূর্বে আলোচ্য বিষয়ে বিস্তারিত জেনে নিয়ে তারপর ব্লগে লিখতে বসি।

কিন্তু গত তিন দিন যাবত অনলাইনে আয় বিকাশে পেমেন্ট ও মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট বিষয়ে রিসার্চ করে এ বিষয়ে আমার এক ধরনের তিক্ত অভীজ্ঞ হয়েছে যেটি আমাকে খুব হতবাক করেছে। আসলে বাংলাদেশের বেশিরভাগ ইউটিউবাররা ও ব্লগাররা কেন এ ধরনের ভূল তথ্য দিয়ে সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করে সেটি আমি বুঝে উঠতে পারি না। ফেসবুকে গুজব রটানো আর ব্লগে লোভণীয় মিথ্যা তথ্য দেওয়া আজকাল এক ধরনের ফ্যাশন হয়ে উঠছে।

অনলাইনে আয় করে বিকাশে পেমেন্ট নেওয়ার বিষয়ে গত তিন দিনের রিসার্চের পর কিছু বাংলা ব্লগার ও ইউটিউবারদের বিষয়ে আমার যে তিক্ত (বাজে) অভীজ্ঞতা হয়েছে সেই অভীজ্ঞতা থেকে কিছু বাংলা ব্লগার ও ইউটিউবারদের ১২ টা বাজানোর জন্য মূলত আমি এই পোস্টটি শেয়ার করছি। তাছাড়া প্রকৃতপক্ষে মোবাইলের মাধ্যমে অনলাইনে আয় করে আদৌ বিকাশে পেমেন্ট নেওয়া যায় কি না সেই বিষয়েও আলোচনা করব।
অনলাইন আয় vs বাংলা ব্লগার ও ইউটিউবারঃ
২০১৫ সাল থেকে এখন অবধি প্রায় দীর্ঘ ৫ বছর যাবৎ ব্লগিং করে অনলাইনে যুক্ত আছি। আমরা ব্লগে টেক বিষয়ে বিভিন্ন ধরনের আর্টিকেল শেয়ার করি থাকি। কখনো কোন ধরনের ভূল তথ্য শেয়ার করে আমাদের পাঠকের মনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করার চেষ্টা করিনি। অনলাইন হতে যতটুকো জেনেছি ততটুকো সকলের মাঝে ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছি। অনেকে আমাদের ব্লগ পড়ে বিভিন্ন বিষয় জানতে পেরেছেন বলে কৃতজ্ঞতা স্বীকার করেছেন। অল্পতেই পাঠকের যতটুকো ভালোবাসা পেয়েছি তাতেই আমরা সন্তুষ্ট থেকেছি। কখনো অহেতুক পাঠকের দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্য কিংবা ব্লগে বেশি ট্রাফিক পাওয়ার আশায় লোভনীয় পোষ্ট শেয়ার করে ভূল তথ্য দেইনি।

কিন্তু গত ৩ দিনে অনলাইনে আয় বিকাশে পেমেন্ট ও মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট পাওয়ার বিষয় সংক্রান্তে অনলাইনে বিভিন্ন ব্লগ পড়ে ও ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিও দেখে ব্লগিং এর প্রতি আমার এক ধরনের ঘৃণা চলে এসেছে। বিশেষকরে বাংলা ব্লগে গুগল এডসেন্স সাপোর্ট করার পর থেকে বাঙ্গালি ব্লগাররা এখন পোস্টের আর্টিকেল এর কোয়ালিটির চাইতে যেকোন উপায়ে ব্লগে ট্রাফিক বাড়িয়ে টাকা আয় করার বিষয়টাকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ মনে করছে। যার ফলশ্রুতিতে বাংলা ব্লগগুলো কোয়ালিটি হারিয়ে ফেলছে। এভাবে ভূল ইনফরমেশন শেয়ার করে অনলাইন হতে টাকা আয় করার কম্পিটিশন বাড়তে থাকলে একসময় বাংলা ব্লগের প্রতি মানুষের আস্থা কমে যাবে।
মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট ২০২০!

উদাহরণ হিসেবে বলছি কিছু দিন পূর্বে গুগল এডসেন্স একাউন্ট ডিলিট করার বিষয়ে আমাদের ব্লগের একজন পাঠক আমাকে জিজ্ঞেস করেছিলেন, উনার একটি এডসেন্স একাউন্ট ব্যান হয়েগেছে, এখন তিনি কিভাবে সেটি ডিলিট করে পুনরায় আবেদন করবেন। তখন আমি আমাদের ব্লগের একটি পোস্ট রেফার করি। তিনি ঐ পোস্ট পড়ে জানান যে, ভাই অনেক উপকার হলো। কিন্তু ইতোপূর্বে আমি অনেক ভূল করে ফেলেছি। আসলে এ বিষয়ে না জানার কারনে ভূলগুলো হয়েছে। শেষে তিনি আক্ষেপ প্রকাশ করে বলেন, ভূল হওয়াটাই স্বাভাবিক, জানার কোন ভালো উপায় না থাকলে ভূলত হবে। অনেক বাংলা ব্লগে খুঁজেছি কিন্তু কোন ভালো সমাধান পাইনি।

এই উদাহরণটি শেয়ার করার পিছনে আমার একটাই উদ্দেশ্যে আমরা যারা কনটেন্ট এর কোয়ালিটি দিকে লক্ষ্য না রেখে শুধুমাত্র আয় বাড়িয়ে নেওয়ার উদ্দেশ্যে ব্লগিং করছি, তারা এভাবে মিথ্যা তথ্য দিয়ে খুব বেশি দিন অনলাইন হতে আয় করে যেতে পারবেন না। অনলাইন হতে দীর্ঘদিন আয় করতে চাইলে আয়ের বিষয়টি গুরুত্ব না দিয়ে আর্টিকেলের কোয়ালিটির উপর গুরুত্ব দেওয়া উচিত।